তোমাকে চাই

তোমাকে যখন ভাবি না

পরে না ভাবার জন্য খারাপ লাগে

তোমাকে যখন ভাবি

তখন তোমাকে পরিপূর্ণ দেখতে না পাওয়ায় খারাপ লাগে

তোমাকে যখন দেখি না

তখন না দেখতে পাওয়ার কষ্টে খারাপ লাগে

তোমাকে যখন দেখি

তখন তোমাকে পাশে না পাওয়ার জ্বালায় খারাপ লাগে

তোমাকে যখন পাশে পাই

তখন তোমাকে ছুঁতে না পারার জন্য খারাপ লাগে

তোমাকে যখন ছুঁয়ে দেই

তখন তোমাকে হারাবার ভয়ে খারাপ লাগে

তুমি যখন হারিয়ে যাও

আমার অস্তিত্ব খুঁজে না পেয়ে অনেক খারাপ লাগে।

তুমি আসলে আমার ভাগ্যের পরিহাস;

তোমাকে পাওয়ার জন্য আমার দুর্ভাগ্য-দায়ভারে যাই

তবুও দেখ, আমি তোমাকেই চাই;

তোমাকে চাই তাই কষ্টের হিসেব করি

তোমাকে চাই বলেই আমি বসে বসে কান্না করি

নির্জন রাত বা বিষন্ন বিকেলে;

যখন নিজের অক্ষমতার কথা ভেবে ভয় পাই

ঠিক তখনি আমি আবার তোমাকেই চাই।

ভালোবাসি তবু প্রান্তরের ঘাস

যত দূরে যাই, জীবন হাতরাই

পাই শুধু অংকের খেলা

যোজন বিয়োজন, হয়তো জীবন

ফিরে পাই মেলা-না’মেলা।

তবুও আকড়ে ধরে বাঁচিবার সাধ

ক্লীশে, অতিবার; ভয় পাই এ জীবনের

হারানো ভাণ্ডার,

রাত শেষে তবু রাতেই ফিরে যাই!  

এই যে এখন রাত্রির বেলা

আলো আঁধারির খেলা

এসময়ই বসে ভাবেন জীবনানন্দ;

যে জীবন গিয়েছে চলে বহুবার,

জন্মাবার তবুও অকস্মাৎ চারিধার

চেপে ধরে, বুকে উঠে আসে রক্তের প্রতিক্ষা!

সময়, আমার সময়,

তুমি আমার অসময়ে থুথু ফেলে যাও….